Bengal School Rule: সিলেবাস শেষ করতে কমানো হবে সব ছুটি! বড়সড় সিদ্ধান্ত শিক্ষামহলের

Bengal School Rule: ব্যহত হয়েছে পড়ুয়াদের পড়াশোনা। সিলেবাসের অবস্থা বেহাল। দীর্ঘ ছুটির ফলে ছোটদের পড়াশোনার যে ক্ষতি হয়েছে তা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ শিক্ষা দফতরের কপালে। সামলানোর উপায় নিয়ে আলোচনা চলেছে…

Written by Laxmishree Banerjee

Published on:

Bengal School Rule: ব্যহত হয়েছে পড়ুয়াদের পড়াশোনা। সিলেবাসের অবস্থা বেহাল। দীর্ঘ ছুটির ফলে ছোটদের পড়াশোনার যে ক্ষতি হয়েছে তা নিয়ে চিন্তার ভাঁজ শিক্ষা দফতরের কপালে। সামলানোর উপায় নিয়ে আলোচনা চলেছে বিস্তর। অবশেষে পড়ুয়াদের ধারাবাহিক শিক্ষায় গতি ফেরাতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিল পর্ষদ। রাজ্যের স্কুলগুলিকে চিঠি পাঠিয়ে জানিয়ে দেওয়া হল একাধিক নির্দেশনা। কড়াকড়ি করা হল শিক্ষা ব্যবস্থা। সিলেবাস শেষ না হলে পরীক্ষার ব্যাঘাত ঘটলে বিপাকে পড়তে হবে স্কুলগুলিকে। এমনটাই ইঙ্গিতও মিলেছে শিক্ষা মহলের তরফে।

রাজ্যের সরকারি স্কুলগুলির পিছিয়ে পড়া পড়ুয়াদের সমস্যা দূর করতে শিক্ষা দফতর স্কুলের সময়সীমা বাড়ানোর পাশাপাশি চিঠি পাঠিয়ে জানিয়েছে, এমন কঠিন অবস্থায় লম্বা গরমের ছুটির ক্ষতি সামলে ছেলে মেয়েদের পড়াশোনার পথের নিম্নলিখিত রূপরেখা অনুযায়ী এগোতে হবে (Bengal School Rule)।

  • পড়ুয়াদের পড়াশোনার ক্ষতি সামাল দিতে প্রতিটি ক্লাসের সিলেবাস শেষ করার জন্য অতিরিক্ত ক্লাস নিতে হবে।
  • অতিরিক্ত ক্লাস নেওয়া ছাড়াও প্রত্যেক পড়ুয়াকে আলাদা করে মনিটরিং করার দায়িত্বও বর্তাবে শিক্ষকদের উপর।
  • সবদিক সামলে নির্দিষ্ট সময়েই পরীক্ষা নিতে হবে।

আরও পড়ুন: Legrand Empowering Scholarship 2023-24: পাবেন 60,000 টাকা পর্যন্ত!

শিক্ষা দফতরের নিয়ম মেনে ইতিমধ্যেই পা বাড়িয়েছে পূর্ব বর্ধমানের বর্ধমান বিদ্যাপীঠ বয়েজ হাইস্কুল। ওই স্কুলে এখন 8 টি পিরিয়ডের পরিবর্তে 9 টি করে পিরিয়ড নেওয়া হচ্ছে। আধ ঘন্টা করে ক্লাসের পিরিয়ডের সময় বাড়ানো হয়েছে। সোম থেকে শুক্রবার পর্যন্ত পড়ুয়াদের এইভাবেই এক নাগাড়ে চলছে ক্লাস। স্কুল সূত্রে খবর মিলেছে, শিক্ষা দফতরের নির্দেশে স্কুলের এই সিদ্ধান্তে বেশ খুশি হয়েছে পড়ুয়া ও অভিভাবকরা।

প্রসঙ্গত, 2রা মে থেকে শুরু করে 14 জুন অবধি দাবদাহের জেরে বন্ধ ছিল স্কুলগুলি। এমনিতেই তখন অবস্থার অবনতি হয়েছে। এর আগে আবার করোনা কালে দীর্ঘ সময় ধরে স্কুল বন্ধ রাখতে হয়েছিল পড়ুয়াদের স্বার্থেই। তখনও ধারাবাহিক পড়াশোনায় ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল। সবমিলিয়ে পড়াশোনায় অনেকটাই পিছিয়ে গিয়েছে রাজ্যের পড়ুয়ারা। সেই সমস্যা দূর করতে ধাপে ধাপে এগোনোর চেষ্টা চললেও খুব একটা পজিটিভ রেজাল্ট মেলেনি এখনও। তাই আগামী দিনের চিন্তায় অতিরিক্ত ক্লাস করানো ছাড়া শিক্ষা দফতর আর নতুন কী পরিকল্পনা সামনে আনে, সেটাই দেখার 9Bengal School Rule)।

এই ধরনের আরও আপডেট পেতে ফলো রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজকে