Best Scholarships After Madhyamik: কত শতাংশ নম্বরে কোন স্কলারশিপ পাবেন, জানেন? রইল সম্পূর্ণটা

After secondary or higher secondary, there are many students who are eligible for scholarship. But many of them do not have the right information. So they cannot understand that they can apply for any scholarship on pass marks.

Written by Laxmishree Banerjee

Updated on:

Best Scholarships: মাধ্যমিক কিংবা উচ্চমাধ্যমিকের পর অনেক পড়ুয়ারাই রয়েছেন যারা নিজ যোগ্যতায় স্কলারশিপের দাবিদার হয়ে ওঠেন। তবে এর মধ্যে অনেকের কাছেই ঠিক তথ্য থাকে না। তাই তারা বুঝে উঠতে পারেন না পাস মার্কসের ওপর কোন কোন স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন।

Best Scholarships After Madhyamik: কত শতাংশ নম্বরে কোন স্কলারশিপ পাবেন, জানেন? রইল সম্পূর্ণটাScholarships আরও খবর

ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে বেশ কিছু জনপ্রিয় স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া। শুরু হয়ে গিয়েছে রিনিউয়াল প্রক্রিয়াও। আজকের এই প্রতিবেদনে রইল কোন কোন পড়ুয়ারা তাদের পরীক্ষার পর কোন কোন স্কলারশিপে, কীভাবে আবেদন করতে পারবেন! কী কী লাগবে প্রয়োজনীয় নথি? (Required documents for scholarships after the Madhyamik examination)
Here’s in detail the scholarships which are suitable for students.

List of Best scholarships

নবান্ন স্কলারশিপ (Nabanna Scholarship)

রাজ্য সরকারের একটি জনপ্রিয় স্কলারশিপ হল নবান্ন (Nabanna Scholarship)।

  • এই স্কলারশিপ এ আবেদন করার জন্য মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ৫০ শতাংশ নম্বর এর বেশি কিন্তু ৬০ শতাংশ এর কম নম্বর থাকতে হবে।
  • এই স্কলারশিপের আওতায় আবেদনকারী পড়ুয়ারা পাবেন বার্ষিক ১০,০০০ টাকা বৃত্তি।

সম্প্রতি শুরু হয়ে গিয়েছে নবান্ন স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া (Best Scholarships)।

ওয়েসিস স্কলারশিপ (Oasis Scholarship):

রাজ্য সরকারের প্রদত্ত আরও একটি জনপ্রিয় স্কলারশিপ হল ওয়েসিস (OASIS Scholarship)। এটি মূলত বাংলার অনগ্রসর শ্রেণীর(ST/SC/OBC) মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের দেওয়া হয়ে থাকে।

  • এই স্কলারশিপ অনুযায়ী, পড়ুয়াদের পূর্ববর্তী ক্লাসে ৫০ শতাংশ নম্বর নিয়ে উত্তীর্ণ হওয়া আবশ্যক।
  • পড়ুয়াদের সর্বনিম্ন ২,০০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত বৃত্তি দেওয়া হয়।

সকল পড়ুয়াদের জন্য সম্প্রতি ওয়েসিস স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে (Best Scholarships)।

আরও পড়ুন: প্রকাশিত হল প্রাইমারী টেট পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড! ডাউনলোড করুন এখনই

ন্যাশনাল স্কলারশিপ (National Scholarship)

  • স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য পড়ুয়ারা তাদের বিগত পরীক্ষায় শুধুমাত্র 50 শতাংশ নম্বর পেলেই হবে।
  • এই স্কলারশিপ অনুযায়ী, পড়ুয়ারদের ১০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত দেওয়া হয়ে থাকে।

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ (Aikyashree Scholarship)

এই স্কলারশিপের মূল লক্ষ্য হল সংখ্যালঘু পড়ুয়াদের অন্যান্য শ্রেণীর পড়ুয়াদের মতোই সমান ভাবে উচ্চশিক্ষিত করে তোলা। এর জন্য যাবতীয় যা আর্থিক খরচের প্রয়োজন তা সরকারই বহন করে থাকে। তাই, ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ মূলত সংখ্যালঘু (Minority) পড়ুয়াদের দেওয়া হয় (Best Scholarships)।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ (Swami Vivekananda Scholarship)

  • এই স্কলারশিপে বছরে কলা বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা ১২,০০০ টাকা এবং বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীরা ১৮,০০০ টাকা পর্যন্ত পেয়ে থাকেন।
  • আবেদন করার জন্য আবেদনকারীকে ন্যূনতম ৬০% নম্বর পেতে হয়।