Duare Sarkar: শুরু হল দুয়ারে সরকার, এবার কী কী নতুন পরিষেবা দেবে রাজ্য?

এই অষ্টম দফাতেও লক্ষীর ভান্ডার, ঐক্যশ্রী, কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের মতো রাজ্য সরকারের একগুচ্ছ পরিষেবার জন্য আবেদন করতে চাইলে সরাসরি শিবিরে গিয়েই করতে পারবেন আবেদন।

Written by Laxmishree Banerjee

Published on:

Duare Sarkar: লোকসভা ভোটের আগেই বাকি প্রকল্পের কাজ মেটাতে চান মমতা সরকার। রাজ্যজুড়ে তাই 5 লক্ষ 66,000 শিবির নিয়ে অবশেষে শুরু হল দুয়ারে সরকার বলে খবর। মূলত 7টি পর্যায়ে এবার 8 কোটি 10 লক্ষ মানুষকে পরিষেবা দেবে রাজ্য। এই অষ্টম দফাতেও লক্ষীর ভান্ডার, ঐক্যশ্রী, কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, ভবিষ্যৎ ক্রেডিট কার্ড, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডের মতো রাজ্য সরকারের একগুচ্ছ পরিষেবার জন্য আবেদন করতে চাইলে সরাসরি শিবিরে গিয়েই করতে পারবেন আবেদন।

Duare Sarkar: শুরু হল দুয়ারে সরকার, এবার কী কী নতুন পরিষেবা দেবে রাজ্য?আরও খবর

বিশদে অষ্টম দফার দুয়ারে সরকার

রাজ্যে তৃণমূল সরকার গদিতে বসার পর সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে চালু হওয়া দুয়ারে সরকারে এবার আরও একগুচ্ছ নতুন সুবিধা দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে। সে তথ্যও জানানো হবে এই প্ৰতিবেদনে। তার আগে জেনে নিন অষ্টম দফার দুয়ারে সরকারের মূল খুঁটিনাটি।

দুয়ারে সরকার কী কী কাজ হবে 2023 (What will the government do in Duare Sarkar 2023)? দুয়ারে সরকার কী কী সুবিধা (What are the benefits of Duare Sarkar)? দুয়ারে সরকার প্রকল্প গুলি কী কী (What are the Duare Sarkar projects)?

  • 15 তারিখ থেকে 30 তারিখ পর্যন্ত চলবে আবেদন প্রক্রিয়া।
  • 2 জানুয়ারি থেকে 31 জানুয়ারির মধ্যে পরিষেবা দেওয়া শুরু করবে রাজ্য।
  • এই দফায় 36টি সরকারি পরিষেবার সুবিধা পাবেন সাধারণ মানুষ।
  • রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে বসবে শিবির।
  • সরকারি নিয়মেই রবিবার এবং ছুটির দিনে বন্ধ থাকবে দুয়ারে সরকার শিবির।

আরও পড়ুন: পড়ুয়াদের খুশির খবর, প্রতি মাসে পাবেন 2500 টাকা পর্যন্ত! চালু হল কন্যাশ্রীর আবেদন প্রক্রিয়া

উল্লেখ্য, অষ্টম দফার এই শিবির মুর্শিদাবাদের উদ্যানপালন দফতরের পলি হাউস ও শেড নেটের প্রকল্পের কাজ করবে। পলি হাউস প্রকল্পের খরচ বাবদ অর্ধেক টাকা সরকার দেবে। যেমন, 500 বর্গমিটার জমির পলি হাউস তৈরি করতে মোট খরচ পড়বে 5 লক্ষ 30,000 টাকা। এর অর্ধেক অর্থাৎ 2 লক্ষ 65,000 টাকা দেবে সরকার। এমনকি অষ্টম দফায় লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, কন্যাশ্রীদের পাশাপাশি বার্ধক্য ভাতা এবং পরিযায়ী শ্রমিকদের নাম নথিভুক্ত করার সুবিধা দেওয়া হবে। এমনটাই জানা গিয়েছে।