KYC New Rule 2024: KYC আপডেট নিয়ে নয়া নির্দেশিকা জারি করলো RBI! এই নিয়ম না মানলেই বিপদ

KYC New Rule 2024: ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট যদি চালু রাখতে হয় তাহলে ভীষণ প্রয়োজনীয় কেওয়াইসি। যদিও আজকাল এই কেওয়াইসির নাম করে প্রতারণার জাল বিছিয়ে চলেছেন প্রতারকেরা (KYC New Rule 2024)। আর…

Written by Palash

Published on:

KYC New Rule 2024: ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট যদি চালু রাখতে হয় তাহলে ভীষণ প্রয়োজনীয় কেওয়াইসি। যদিও আজকাল এই কেওয়াইসির নাম করে প্রতারণার জাল বিছিয়ে চলেছেন প্রতারকেরা (KYC New Rule 2024)। আর তাই সাধারণ মানুষকে আগেভাগে সাবধান করে দিল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া বা RBI। সম্প্রতি এই বিষয়ে জারি করা হয়েছে নয়া নির্দেশিকা। কেওয়াইসি করানোর জন্য গ্রাহকদের কী করনীয় আর কি করা উচিত নয়, সবটাই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় এই ব্যাঙ্কের তরফে।

KYC New Rule 2024

প্রযুক্তির দৌলতে যেকোনো কাজ খুব সহজেই হয়ে যাচ্ছে সম্পন্ন। তবে এই প্রযুক্তিকে হাতিয়ার করে ময়দানে নেমে পড়েছেন বেশ কয়েকজন অসাধু ব্যক্তি। আর সে কারণেই সাবধান না হলেই বিপদ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ক্রমশ সক্রিয় হচ্ছে প্রতারণা। কেওয়াইসির নাম করে মাঝেমধ্যেই আসে ভুয়ো ফোন (KYC New Rule 2024)। আর ভুল করে তাদের সমস্ত তথ্য যদি দিয়ে দেওয়া হয় তাহলেই কিন্তু ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট হয়ে যাবে খালি। গ্রাহকদের যাতে এই সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয় সে কারণেই নয়া নির্দেশিকা জারি করা হলো রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া বা RBI এর তরফে।

What To Do (কী করণীয়)

  • KYC যদি করতেই হয় তাহলে সরাসরি চলে যেতে হবে নির্দিষ্ট ব্যাঙ্কের শাখায়।
  • ভুল করেও এই সম্বন্ধিত কোনো ফোন এলে চটজলদি দেওয়া যাবে না তথ্য।
  • নিজের ব্যাঙ্ক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শাখার সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগ করে সম্পূর্ণ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে হবে।
  • যদি ব্যাঙ্কের শাখা কিংবা অফিসে যাওয়া সম্ভব না হয় তাহলে নির্দিষ্ট ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে কাস্টমার সাপোর্ট ফোন নম্বরে করতে হবে যোগাযোগ।
  • KYC সংক্রান্ত যেকোনো তথ্যের আপডেট পেতে হলে এই নম্বরে যোগাযোগ করলেই মিলবে সুরাহা।

আরও পড়ুন: কেন্দ্রের এই প্রকল্পের আওতায় প্রতিটি মহিলা হবে ‘লাখপতি’! এখুনি আবেদন করুন

What Not To Do (কী করা উচিত নয়)

  • KYC সংক্রান্ত ভুয়ো কল আসলে তৎক্ষণাৎ যোগাযোগ করতে হবে ব্যাঙ্কের শাখায়।
  • KYC সংক্রান্ত নানান তথ্য সংগ্রহ করতে হবে সেখান থেকেই।
  • ভুল করেও কারোর সঙ্গে শেয়ার করা চলবে না ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর, ডেভিড কিংবা ক্রেডিট কার্ডের তথ্য অথবা ওটিপি।
  • অজ্ঞাত পরিচয় কোনো ব্যক্তি যদি কেওয়াইসি তথ্য বা নথি চেয়ে বসেন তাহলে ভুল করেও দেওয়া চলবে না।
  • আনভেরিফাইড কোন অ্যাপ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।
  • অজানা নম্বার থেকে আসা SMS বা WhatsApp এর মেসেজে যদি কোনো লিঙ্ক থাকে তাহলে সেই লিঙ্কে ক্লিক না করাই ভালো।