Pradhan Mantri Matru Vandana Yojana: প্রতি মাসে পাবেন 5,000 টাকা, দুর্দান্ত প্রকল্প কেন্দ্রীয় সরকারের! দেখে নিন আবেদন পদ্ধতি

Pradhan Mantri Matru Vandana Yojana: মায়েদের কোল আলো করে সন্তান এলেই হাত ভর্তি টাকা দেবে কেন্দ্র। মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে এমনই একটি মাতৃত্ব বেনিফিট প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে।…

Written by Laxmishree Banerjee

Published on:

Pradhan Mantri Matru Vandana Yojana: মায়েদের কোল আলো করে সন্তান এলেই হাত ভর্তি টাকা দেবে কেন্দ্র। মহিলা ও শিশু উন্নয়ন মন্ত্রকের তরফে এমনই একটি মাতৃত্ব বেনিফিট প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। যার অধীনে 19 বছর বা তার বেশি বয়সের গর্ভবতী মহিলাদের জন্য বার্ষিক 5000 টাকা নগদ দেওয়া হবে। PMMVY অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের (AWC) মাধ্যমে বাস্তবায়িত এই প্রকল্পে কীভাবে আবেদন করতে হবে, আগে থেকে জেনে রাখা ভালো।

Senior Citizen Savings Scheme: সুখবর, স্বল্প টাকা বিনিয়োগে বড় রিটার্ন, দুর্দান্ত স্কিম নিয়ে হাজির

এই প্রকল্পের সুবিধা?

  • তিনটি কিস্তিতে 5000 টাকা নগদ প্রদান করা হয়।
  • প্রথম কিস্তিতে 1000 টাকা দেওয়া হয়।
  • গর্ভাবস্থার ছয় মাস হলে দ্বিতীয় কিস্তিতে 2000 টাকা দেওয়া হয়।
  • সন্তানের জন্ম হওয়ার পর তৃতীয় কিস্তিতে 2000 টাকা দেওয়া হয়।

আবেদনের যোগ্যতা (Eligibility criteria for Pradhan Mantri Matru Vandana Yojana)

  • আবেদনকারীকে একজন মহিলা হতে হবে।
  • আবেদনকারীকে গর্ভবতী হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স কমপক্ষে 19 বছর হতে হবে।
  • স্কিমটি শুধুমাত্র প্রথম জীবিত জন্মদানের জন্য প্রযোজ্য।

তবে, কোনো গর্ভবতী মায়েরা কেন্দ্রীয় সরকার বা রাজ্য সরকার বা পাবলিক সেক্টরের কোনো নিয়মিত চাকুরী করলে PMMVY-এর অধীনে এই নগদ সুবিধা পাবেন না।

আরও পড়ুন: ট্রেনের যাত্রীদের জন্যে সুখবর, এই বিশেষ 5 নিয়মে পাবেন একাধিক সুবিধা

কীভাবে আবেদন করবেন (How to apply for Pradhan Mantri Matru Vandana Yojana)?

  • প্ৰথমে htpps://pmmvy.nic.in পোর্টালটিতে যান।
  • পোর্টালে নিবন্ধনের জন্য নিকটস্থ অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী বা আশা কর্মীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।
  • যেহেতু পেমেন্ট আধার ভিত্তিক পেমেন্ট তাই আধার এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সুবিধাভোগীর নাম একই হতে হবে এবং ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট আধারের সঙ্গে লিঙ্ক করা থাকতে হবে।
  • পোর্টালে রেজিস্ট্রেশন করার আগে সুবিধাভোগীকে নিম্নলিখিত কিছু তথ্য সঙ্গে রাখতে হবে:
  • সুবিধাভোগীর নাম, আধার নম্বর, মোবাইল নম্বর, ঠিকানা, এলএমপি তারিখ, এএনসি তারিখ, সন্তানের জন্ম তারিখ, ওপিভি, ডিপিটি, বিসিজি এবং হেপ বি (সন্তানের জন্মের ক্ষেত্রে)।

এই ধরনের আরও আপডেট পেতে ফলো রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজকে