Madhyamik 2024: ‘গায়ে হাত দিয়ে তল্লাশি…’, নতুন নিয়ম জারি মধ্য শিক্ষা পর্ষদের

Madhyamik 2024: হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন। এরপরেই শুরু হতে চলেছে মাধ্যমিক ২০২৪। ছাত্রছাত্রীরা সেরে নিচ্ছেন তাঁদের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। রাজ্যের সমস্ত পরীক্ষার্থীরা যাতে বিনা বাধায় মাধ্যমিক এবং উচ্চ…

Written by Laxmishree Banerjee

Published on:

Madhyamik 2024: হাতে গোনা আর মাত্র কয়েকটা দিন। এরপরেই শুরু হতে চলেছে মাধ্যমিক ২০২৪। ছাত্রছাত্রীরা সেরে নিচ্ছেন তাঁদের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। রাজ্যের সমস্ত পরীক্ষার্থীরা যাতে বিনা বাধায় মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক দুই পরীক্ষায় দিতে পারেন সেই জন্যেই নানারকম প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন প্রশাসন। মুখ্য সচিব বিপি গোপালিকা পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থীদের পৌঁছানোর জন্য করেছেন বিভিন্ন ব্যবস্থা। এর পাশাপাশি পরীক্ষা কেন্দ্রে তল্লাশি এবং মনিটরিং সংক্রান্ত বিভিন্ন নতুন নিয়মের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন সকলকে। বিশেষ বৈঠক হয়েছে পরিবহণ দপ্তরের সঙ্গেও। এবছর মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক দুই পরীক্ষার শুরু হওয়ার পরেই যাতে পরীক্ষার্থীদের মধ্যে কোনওরকম বিভ্রান্তির সৃষ্টি না হয় সেই দিকে নজর রেখে বেশ কিছু পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যেই।

মুখ্য সচিব ভগবতীর প্রসাদ গোপালিকা গত শনিবার নবান্নের শিক্ষা দপ্তর এবং পুলিশ বিদ্যুৎ ও পরিবহণ দপ্তরের সঙ্গে বসে ছিলেন বৈঠকে।

আরও পড়ুন: Jio Recharge Plan: গ্রাহকদের জন্য সুখবর! সবচেয়ে সস্তার প্ল্যান নিয়ে হাজির Reliance Jio

  • যতক্ষণ পরীক্ষা চলবে ততক্ষণ যাতে কোনও এলাকায় বিদ্যুৎ বিভ্রাট না হয় সেই বিষয়ে নিশ্চিত রাখতে বলেছেন বিদ্যুৎ বিভাগকে।
  • যেখানে রয়েছে হাতির উৎপাত বিশেষত জঙ্গলমহল বা উত্তরের জেলাগুলিতে পর্যাপ্ত ড্রপগেট, বনকর্মী এবং হুলাপার্টি বহাল রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
  • পরীক্ষা কেন্দ্রের সম্পূর্ণ নিরাপত্তা এবং প্রশ্নপত্র কোনওভাবেই যাতে ফাঁস না হয় বিভিন্ন অপ্রীতিকর ঘটনা রোধ করার সম্পূর্ণ দায়িত্বভার রয়েছে পুলিশের উপর।
  • সামনে গেটে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানোর ব্যবস্থা করতে হবে, যেখানে থাকবেন একজন কর্মকর্তা, অবশ্যই তাঁকে পুলিশের কর্মী হতে হবে কোনও সিভিক ভলেন্টিয়ার সেখানে চলবে না।
  • পুলিশ পরীক্ষার্থীদের কোনওভাবে যাতে ব্যাগ পকেট বা শরীরের হাত না দিয়ে পরীক্ষা করেন সেই বিষয়েও নজর রাখতে বলা হয়েছে! মনে করা হচ্ছে এইসব তল্লাশি পরীক্ষা শুরুর আগে পরীক্ষার্থীদের মনে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। সাধারণত পরীক্ষার্থীদের মনে হতেই পারে যে তাঁরা তো অপরাধী নন, তাহলে কেন পুলিশ এভাবে তাঁদের তল্লাশি করবেন!
  • অপরদিকে নিয়োগ প্রাপ্ত শিক্ষক শিক্ষিকারা পরীক্ষার্থীদের ব্যাগে কিংবা কাছে কোনও রকম মোবাইল ফোন বা ইলেকট্রনিক গেজেটস রয়েছে কিনা সেই বিষয়ে নিশ্চিত করবেন।
  • পরীক্ষার্থীরা কোনভাবেই তাঁদের পিতা-মাতা কিংবা যে কোনও অভিভাবকের সঙ্গে পরীক্ষা কেন্দ্রের ভিতর প্রবেশ করতে পারবেন না।